স্বপ্না

স্বপ্না বহু বছরের গণআন্দোলন, নারী আন্দোলনের কর্মী।

কমিউনিস্ট যোদ্ধা বেলা (প্রথম কিস্তি)

‘৪৮-৪৯ সালে তেভাগার সশস্ত্র কৃষক যুদ্ধের দ্বিতীয় পর্যায় উচ্চ মাত্রায় উন্নীত হল। কমিউনিস্ট পার্টিকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করার পর জেল উপচে পড়ল রাজনৈতিক বন্দীতে। রাজনৈতিক বন্দীমুক্তির দাবিতে কলকাতায় মেয়েদের এক বিরাট মিছিল সংঘটিত হল ১৯৪৯ সালের ২৭ শে এপ্রিল৷ সেদিন ভারত সভা হলেও মহিলা আত্মরক্ষা সমিতির সভায় সিদ্ধান্ত হয় যে মেয়েরা ১৪৪ ধারা ভাঙার জন্য রাস্তায় নামবে। মহিলা আত্মরক্ষা সমিতিও নিষিদ্ধ হয়। ঐ সভা থেকে বেরিয়ে আমরা মিছিলে যোগ দিই। বিশাল মিছিল চলছে কলকাতার রাজপথ জুড়ে। সেদিন ‘স্বাধীন’ ভারতের সদ্যোজাত রাষ্ট্রের পুলিশ আক্রমণ করল মিছিল। মেয়েদের হত্যা করল। মেয়েরা গুলি খেয়ে রাস্তায় একে একে পড়ে গেলেন৷ শহিদ হলেন গীতা, লতিকা, প্রতিভা, অমিয়া, যমুনা। কলকাতার রাজপথ মেয়েদের রক্তে লাল হয়ে গেল।’ বলতে বলতে আবেগে, ব্যথায় জ্বলে উঠছিল বেলার চোখ, যেন প্রত্যক্ষ করছেন সেই দৃপ্ত মিছিল।

শেয়ার করুন

এ এক নতুন গণতন্ত্রের যুদ্ধ

স্বাধীনতা- 

মুক্তি- 

ফিরে পাওয়ার-

সব হারা নিপীড়িত লাঞ্ছিত মানুষের

এক নতুন গণতন্ত্রের যুদ্ধ !

শেয়ার করুন

জেলের অন্ধকারে

শব্দ গুলো মাঝে মাঝে-

বুদবুদের মতো ভেসে ওঠে,

বায়বীয় অবয়ব মিলিয়ে যেতে থাকে,

বয়ে যাওয়া বাতাসে।

সময়-জেলের অন্ধকারে

পাথরের মতো ভারি হতে থাকে।

শেয়ার করুন