অনুবাদ-প্রবন্ধ

ন্যায় বিচারের অপেক্ষায় তিলে তিলে মৃত কাঞ্চন ন্যানাওয়ার

আমরা পরে জানতে পারি যে এই বছরের ১২ জানুয়ারি কাঞ্চন ভয়ানক মাথাব্যথা ও শ্বাসকষ্টের অভিযোগ জানান। তাঁকে সাসুন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে তাঁর মস্তিষ্কে একটি লাম্প পাওয়া যায়। অরুণকে এই বিষয়ে জানানো হয়েছিল পাঁচ দিন পর, ১৯ জানুয়ারি। ১৯ এবং ২০ তারিখ, দুদিনই অরুণকে কাঞ্চনের সাথে দেখা করার জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছিল। কিন্তু অরুণের সম্মতি ও সই ছাড়াই এবং তাঁকে তাঁর স্ত্রীর সাথে দেখা করার অনুমতি না দিয়েই, কাঞ্চনের মস্তিষ্কের অস্ত্রোপচার করা হয়। ফলস্বরূপ, সাসুন হাসপাতালের আইসিইউতে মারা যান কাঞ্চন। মাত্র ৩৭ বছর বয়সে।

শেয়ার করুন

কারাগারশূন্য ভারত বিষয়ক কিছু ভাবনা

‘দ্য অ্যাবলিশন প্রজেক্ট’ এর সংজ্ঞা অনুযায়ী ‘দাসত্ব’ হল এমন এক শর্ত যা মানুষকে অন্যের ‘সম্পত্তি’তে পরিণত করে, মালিক পক্ষ কিছু মানুষের কাছ থেকে তাদের সম্মতির অধিকার, মানবাধিকারসহ সমস্ত টুকু কেড়ে নিয়ে নিজেরা একচ্ছত্র ক্ষমতা ভোগী হয়ে ওঠে। শুধুমাত্র জেলের ভিতর বন্দীদের তদন্তের নামে নগ্ন করে হেনস্থা করা, পর্যাপ্ত ওষুধ-জল-খাবার না দেওয়া কিংবা অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে নির্বাসিত থাকতে বাধ্য করার মত বিষয়গুলো প্রকাশ্যে এসেছে, আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে উঠেছে। মনুস্মৃতির বিধান স্বাধীন ভারতের আইনে সেভাবে প্রতফলিত নাহলেও দলিত বা আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষদের প্রান্তিকায়নের ক্ষেত্রে তা সম্পূর্ণভাবে পরিলক্ষিত হয়।

শেয়ার করুন

জেলবন্দী প্রজাতন্ত্রে এক কয়েদীর স্ত্রী

তাদেরকে অস্ত্র আইন আর ভারতীয় দণ্ডবিধির নানা ধারায় অভিযুক্ত করা হয় – বিপদজনক অস্ত্র নিয়ে দাঙ্গা বাঁধানো, বেআইনি জমায়েত, সরকারী কর্মচারীদের কাজে বাধা দেওয়া, খুনের চেষ্টা। পাশাপাশি ছেলেটাকে সন্ত্রাস বিরোধী আইন বা ইউএপিএ (UAPA) তেও অভিযুক্ত করা হয়।
চোদ্দ দিন পরে ১১ মার্চ সে যখন স্বামীর সঙ্গে দেখা করতে যায় – তখন ছেলেটা হুইলচেয়ারে, দু পায়ে আর ডান হাতের আঙুলে ব্যাণ্ডেজ বাঁধা। হেফাজতে থাকাকালীন পুলিশি অত্যাচারের ফল।

শেয়ার করুন

পুঁজিবাদের বিশ্লেষণ, বিপ্লবের সংজ্ঞা: দলিত, নারী ও ক্ষেত মজুর

নারীবাদী ও দলিত আন্দোলন কর্মী ও তাত্ত্বিক গেইল ওমভেড-এর Analysing Capitalism, Defining Revolution – Dalits, Women and Peasants শীর্ষক প্রবন্ধের অনুবাদ

শেয়ার করুন
Mir Suhail's cartoon on Kashmir republished in Bama Patrika August issue

কাশ্মীরে বিদ্রোহের এক দশক

কাশ্মীরের জন্য কোনও আশাবাদী পূর্বাভাস নেই, যদিও তার এই অসম্মত অস্বীকারের মধ্যে এক ধরনের মর্যাদা রয়েছে। বিক্ষোভ থেকে গণ-বিদ্রোহ, ধৈর্য এবং নীরবতা পর্যন্ত সবক্ষেত্রে কাশ্মীর তার সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে, কাশ্মীর তার অস্থির হৃদয় ধ্বনিত করছে।

শেয়ার করুন
Kashmiri women representation

ক্যামেরার ত্রাণকর্তা দৃষ্টি: কান্নার আধারে কাশ্মীরি নারীদের পরিচয় নির্মাণের সমস্যা

কাশ্মীরি মহিলারা প্রাথমিকভাবে সংঘাতের শোকে জর্জরিত শরীর মাত্র, এবং তাঁদের শ্রম (শারীরিক, রাজনৈতিক, মানসিক) এবং সামাজিক-রাজনৈতিক বা সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে তাঁরা যে ভূমিকা পালন করেন সেগুলি এক্ষেত্রে গৌণ, ফলে ক্যামেরায় তাঁদের সেই চিত্র তুলে ধরা যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ নয়। সমাজে তাঁরা যে ভূমিকা পালন করেন তার অ-স্বীকৃতি এবং অদৃশ্যকরণ সক্রিয়ভাবে কাশ্মীরি নারীদের বিভিন্ন ধরনের সংগ্রামের আন্তঃসম্পর্ক তুলে ধরতে সাংবাদিক এবং পর্যবেক্ষকদের বাধার কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

শেয়ার করুন

আলজিরিয়ার পর্দামুক্তি

ফ্রানৎস ফ্যানন সারা পৃথিবীতে সাম্রাজ্যবাদ, ঔপনিবেশিকতা, বর্ণবিদ্বেষ এবং আধিপত্যবাদ বিরোধী লড়াইয়ের আঙিনায় এক উজ্জ্বল নাম। ফ্যানন জন্মগ্রহণ করেন ফরাসী উপনিবেশ মার্টিনিক-এ, যা তাঁকে সাম্রাজ্যবাদী শক্তির বাস্তবতা সম্পর্কে প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতার মুখোমুখি করে। শুধু দার্শনিক হিসাবেই নয়, বিভিন্ন গণ আন্দোলনের শরিক হয়েও ফ্যানন আজীবন লড়াই করেছেন সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে, জন্ম দিয়েছেন বিপ্লবী ভাবধারার। অনুপ্রাণিত করেছেন অসংখ্য প্রান্তিক জাতি-গোষ্ঠীর মানুষকে। ব্ল্যাক স্কিন, হোয়াইট মাস্ক (কালো চামড়া, সাদা মুখোশ), দ্য রেচেড অব দ্য আর্থ (পৃথিবীর কাঙাল মানুষেরা) ইত্যাদি লেখায় বারবার শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যবাদকে আক্রমণ করেছেন ফ্যানন, সাথে সাথে নিপীড়িত মানুষের সংগ্রামের কথা বলেছেন। সাম্রাজ্যবাদ কীভাবে শুধুই দেশ বা বাসভূমির ওপরেই নয়, তাঁর সাথে মানুষের মননেও গভীর ছাপ ফেলে – সে বিষয়ে ফ্যাননের পর্যালোচনা ছিল চির সতর্ক। তাই বারবারই সাম্রাজ্যবাদের হাত কীভাবে দেশের কাঁটাতার পেরিয়ে মানুষের ভাষা, সত্তা, সংস্কৃতি, চিন্তা – সমস্তকিছুর ওপরেই নিয়ন্ত্রণের থাবা বসায়, সে কথা উঠে এসেছে ফ্যাননের লেখায়।

শেয়ার করুন

নারী এবং অর্থনীতি

শার্লট পারকিন্স গিলম্যান-এর লেখা Women and Economics – A Study of the Economic Relation Between Men and Women as a Factor in Social Evolution প্রকাশিত হয় ১৮৯৮ সালে। ভাবনা চিন্তার দিক থেকে সময়ের চেয়ে অনেক এগিয়ে থাকা শার্লট এই বইয়ে আলোচনা করেন কিভাবে মনুষ্যজাতিই একমাত্র প্রজাতি হয়ে ওঠে যাদের স্ত্রীলিঙ্গ বেঁচে থাকার জন্য সম্পূর্নভাবে পুরুষদের ওপর নির্ভরশীল। তার সমাজতান্ত্রিক নারীবাদকে মনে রেখে শার্লট পারকিন্স গিলম্যানের জন্মমাসে আমরা উইমেন অ্যান্ড ইকোনমিক্স থেকে কিছু নির্বাচিত অংশ অনুবাদ করলাম।

শেয়ার করুন

শ্রেণি সংগ্রাম ও পিতৃতন্ত্র: মাওবাদী আন্দোলনে মেয়েরা

ভীমা কোরেগাঁও মামলার অন্যতম অভিযুক্ত সোমা সেনের বর্তমান ঠিকানা মহারাষ্ট্রের বাইকুলা জেল। ২০১৮ সালের ৬ জুন, বিভিন্ন শহরে হানা দিয়ে একাধিক সুপরিচিত রাজনৈতিক ও মানবাধিকার কর্মীকে গ্রেফতার করে পুনে পুলিস। ইউএপিএ-সহ একাধিক মিথ্যা মামলায় অভিযুক্ত হয়ে জেলে যান সোমা সেনসহ মোট পাঁচজন মানবাধিকার কর্মী। পরবর্তীতে এই একই মামলায় জেলে গেছেন দেশের মোট ১৫ জন প্রথম সারির রাজনৈতিক কর্মী। শ্রমিক ধর্মঘট থেকে নারী আন্দোলন, সারা জীবনই ব্যবস্থাবদলের পক্ষে লড়াইয়ে থেকেছেন সোমা সেন, দাঁড়িয়েছেন নিপীড়িত মানুষের সংগ্রামের পাশে। ভারতের মাওবাদী আন্দোলন ও আন্দোলনে মেয়েদের ভূমিকা তাঁর অন্যতম আগ্রহের জায়গা। কাজ করেছেন একাধিক মানবাধিকার ও নারী সংগঠনের সঙ্গে। ২০১৭ সালে নকশালবাড়ির ৫০ বছরে ইপিডব্লিউ পত্রিকায় এই নিবন্ধটি তিনি লেখেন।

শেয়ার করুন

ফ্রান্সের দীর্ঘ ১৯৬৮: লিপ আন্দোলন, ১৯৬৮-১৯৮১

ডোনাল্ড রেইড-এর “Opening the Gates: The Lip Affair, 1968-1981” বই থেকে নির্বাচিত অংশের অনুবাদ। অনুবাদ করেছেন শাশ্বত গাঙ্গুলী।

শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক নারী দিবস: এক জঙ্গি উদযাপন

আলেকজান্দ্রা কলোনতাই-এর ১৯২০ সালে লেখা প্রবন্ধ আন্তর্জাতিক নারী দিবস-এর বাংলা অনুবাদ

শেয়ার করুন